ইউক্রেনের বিমান ভূপাতিতের ঘটনায় কয়েকজন আটক

নিজস্ব ডেস্ক প্রতিবেদক : মিসাইল হামলার মাধ্যমে ইউক্রেনগামী বিমান ভূপাতিত করার ঘটনায় কয়েকজনকে আটক করেছে ইরান। ইরানের বিচার বিভাগ সংবাদ মাধ্যমকে খবরটি নিশ্চিত করেছে। এই ঘটনায় ইরানের উপর কানাডাসহ বিভিন্ন দেশের ক্রমবর্ধমান চাপের মধ্যে মঙ্গলবার আটকের কথা জানালো তেহরান। খবর বিবিসি’র

দেশটির বিচার বিভাগের মুখপাত্র গোলামহোসেন ইসমাইল জানিয়েছেন, ধারাবাহিক তদন্তের অংশ হিসেবে কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।

বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার কয়েকদিন পর বিশ্বব্যাপী চাপের মুখে নিজেদের দোষ স্বীকার করে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ঘটনা তদন্তে বিশেষ আদালতকে নির্দেশ দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন এই ঘটনায় একক কোন ব্যক্তি জড়িত নন। ঘটনার পেছনে দায়ী সকলকে চিহ্নিত করার নির্দেশ দিয়েছিলেন রুহানি। মঙ্গলবার ওই বিশেষ আদালতই কয়েকজনকে আটকের কথা নিশ্চিত করেছেন। তবে আটকৃতদের সংখ্যা ও পরিচয় নিশ্চিত করেনি আদালত।

ঘোষণাটি এমন সময়ে আসলো যখন এই ঘটনায় ইরানের উপর ক্রমাগত চাপ বাড়ছে। ইউক্রেনের বিমানটি ভূপাতিত করার বিষয়টি স্বীকার করার পর থেকেই কানাডা, ইউক্রেনসহ বিভিন্ন দেশ চাপ প্রয়োগ করে আসছিলো। সর্বশেষ গতকাল সোমবার বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় নিজেদের নাগরিকদের হারানো পাঁচটি দেশ ইরানের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে যাওয়ার ঘোষণা দেয়।

উল্লেখ্য, গত ৩ জানুয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে ইরানের শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে ড্রোন থেকে হামলা চালিয়ে হত্যা করা হয়। এই হত্যার বদলা নিতে গত ৮ জানুয়ারি ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের দুটি বিমানঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। এর কয়েক ঘণ্টা পরই ইউক্রেন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট পিএস৭৫২ তেহরানে বিধ্বস্ত হয়। বিমানের ১৭৬ আরোহীর সবাই নিহত হন।