টক শোতে ’হত্যার’ উসকানি, ব্যবস্থা কই : মেনন (ভিডিও সহ)

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক : নিউজ টোয়েন্টিফোর চ্যানেলের ‘জনতন্ত্র গণতন্ত্র’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানে মুফতি এহছানুল হক এর ‘মুরতাদদের হত্যা করা যায়’ এমন বক্তব্য প্রচারের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা না নেওয়ার সমালোচনা করেছেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন। মঙ্গলবার ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ১৪ দলের ‘শান্তি সমাবেশে’ বক্তব্যে এই প্রসঙ্গ তোলেন তিনি।

সাবেক মন্ত্রী মেনন বলেন, “নিউজ টোয়েন্টিফোরের মতো একটি জনপ্রিয় টেলিভিশন চ্যাণেলে মুফতি এহছানুল হক টক শোতে গিয়ে বলেন, কাফের এবং মুরতাদদের কতল করা ইসলাম জায়েজ করেছে।  “সেটা যখন প্রচার করা হয় টেলিভিশনের মাধ্যমে এবং টেলিভিশন মালিকেরা সেইটা নিয়ে কোনো ব্যবস্থা নেয় নি।”

সম্প্রতি নিউজ টোয়েন্টিফোর চ্যানেলের ‘জনতন্ত্র গণতন্ত্র’ অনুষ্ঠানে মুফতি এহছানুল হক ওই কথা বলেছিলেন।

এই বক্তব্য প্রচার করায় চ্যানেল মালিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে মেনন বলেন, “সবচেয়ে বড় ব্যাপার হচ্ছে আমাদের দেশে আইন আছে, এই আইন অন্য সব ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়, কিন্ত এই ক্ষেত্রে ব্যবহার হয় না।”

ওয়াজেও নানা উসকানিমূলক বক্তব্য প্রচারের বিষয়টি তুলে ধরে তিনি বলেন, প্রশাসনের ‘ভেতর থেকে’ জঙ্গিবাদে মদদ দেওয়া হচ্ছে।

মেনন বলেন, “আজকে আমাদের সরকারের মধ্যে আমাদের জননেত্রী শেখ হাসিনা সুস্পষ্ট নির্দেশ দিচ্ছেন, দাঁড়িয়ে থেকে দৃঢ়ভাবে ভূমিকা পালন করছেন।

“অথচ আমাদের প্রশাসনের ভিতর থেকে এই যে সহযোগিতাগুলো হচ্ছে এটা যদি নির্মূল করা না যায়, তাহলে জঙ্গিবাদকে কার্যকরভাবে দমন করা যাবে না।”

সভায় জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, নারীদের নিয়ে হেফাজতে ইসলামের আমির আহমদ শফীর ‘তেঁতুল তত্ত্ব’ থাকবে না।

“সিদ্ধান্ত হচ্ছে গণতন্ত্রের মধ্যে মাদ্রাসা শিক্ষা থাকবে, কিন্তু তেঁতুল তত্ত্ব থাকবে না। বিভিন্ন ধর্মের উপাসনালয় থাকবে, মসজিদ-মন্দির থাকবে, কিন্তু সাম্প্রদায়িক তৎপরতা থাকতে পারবে না।।”

ইনু বলেন, “এখনও ধর্মের মুখোশধারীরা, হিন্দু ধর্মের প্রতি বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে, নারীদের প্রতি বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে, জঙ্গি সন্ত্রাসীদের উস্কানি দিচ্ছে। এ রকম পরিস্থিতিতে রাজনৈতিকভাবে আমাদের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা দরকার।

“জঙ্গিবাদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক, রাজনৈতিকভাবে যারা আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছে, তাদের প্রতিহত করতে হবে।”

জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিএনপির সাংসদদেরও এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ১৪ দলের মুখপাত্র ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম।

তিনি বলেন, “সারা দুনিয়ার মানুষের কাছে আমাদের একটাই আওয়াজ, একটাই স্লোগান শ্রীলংকা, নিউ জিল্যান্ডসহ এইসব জঘন্য সাম্প্রদায়িকতা, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সবাইকে দাঁড়াতে হবে। এদের কোনো ধর্ম নাই, বর্ণ নাই, এদের কোনো দেশ নাই, দল নাই “

সাংসদ হিসেবে শপথ নেওয়া বিএনপি নেতাদের ‘ধন্যবাদ’ জানিয়ে নাসিম বলেন, “আমরা খুশি হয়েছি, ধন্যবাদ জানাই বিএনপি বন্ধুদের। অনেক দেরিতে হলেও তারা সংসদে শপথ নিয়ে যোগদান করেছে।

“আমরা আহ্বান করবো শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আপনারাও এগিয়ে আসুন। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করুন, সমর্থন করুন।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খান, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি সাংসদ মুহাম্মদ শফিকুর রহমান, লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক আব্দুস সবুর এই সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email