নড়াইলের দায়রা জজকে বিচারকার্যে একবছর বিরতির নির্দেশ

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক : নড়াইলের দায়রা জজ শেখ আব্দুল আহাদকে এক বছর ফৌজদারি মামলার বিচার কাজ পরিচালনা থেকে বিরত রাখার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। হত্যা মামলার প্রধান আসামিকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়ায় তাকে এই নির্দেশ দিয়েছে।

বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টের জেনারেল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (জিএ) কমিটিতে উপস্থাপন করতে আইন মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে হত্যা মামলার প্রধান আসামিকে দেওয়া অব্যাহতির আদেশ বাতিল করেছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এই আদেশ দেন। এছাড়া মামলার প্রধান আসামি মল্লিক মাঝহারুল ইসলাম ওরফে মাঝাকে নিম্ন আদালতের দেওয়া জামিন বহাল রেখেছে হাইকোর্ট। তবে জামিনের অপব্যবহার করলে তা বাতিল হবে বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।

২০১৫ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি নড়াইলের কালিয়া থানার চন্ডিনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পশ্চিম পার্শ্বে রাস্তায় পূর্ব শত্রুতার জেরে এনামুল শেখকে গুলি করে হত্যা করা হয়। কুপিয়ে জখম করা হয় আরো কয়েকজনকে। এ ঘটনায় পরদিন বাদী হয়ে মল্লিক মাঝহারুলসহ ৬৮ জনের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩০২/৩৪ ধারায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ভাই মো. নাজমুল হুদা। ২০১৭ সালের ৩০ জানুয়ারি ওই ৬৮ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। এই মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করলে গত বছরের ২৯ নভেম্বর প্রধান আসামিকে জামিন দেন দায়রা জজ শেখ আব্দুল আহাদ।

গত ১১ জুন প্রধান আসামিকে অব্যাহতি দিয়ে বাকি ৬৭ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আদালত। এই আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিভিশন মামলা করেন মামলার বাদী। পরে হাইকোর্ট ওই অব্যাহতির আদেশ কেন বাতিল করা হবে না এই মর্মে রুল জারি করে। পাশাপাশি বিচারকের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে হাইকোর্ট বৃহস্পতিবার এই রায় দেয়। এ সময় রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মো. সারোয়ার হোসেন বাপ্পী ও বাদীর পক্ষে আইনজীবী মোহাম্মদ হোসেন শুনানি করেন।

Print Friendly, PDF & Email