পশুপালন-দুধ উৎপাদন বাড়াতে বিশ্ব ব্যাংকের ৫০ কোটি ডলার

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের পুষ্টির চাহিদার যোগান দিতে পশুপালন ও দুগ্ধ উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ৫০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক। ‘লাইভস্টক অ্যান্ড ডেইরি ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়নে এ অর্থায়ন করা হবে। বর্তমান বিনিময়হার অনুযায়ী বাংলাদেশি মুদ্রায় এই ঋণের পরিমাণ চার হাজার ২৫০ কোটি টাকা। বার্ষিক মোট ২ শতাংশ সুদে পাঁচ বছরের রেয়াতকালসহ ৩০ বছরে এ ঋণ পরিশোধ করতে হবে।

বুধবার রাজধানীর এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ বিষয়ে সরকার ও বিশ্ব ব্যাংকের মধ্যে এ সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তিতে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব মনোয়ার আহমেদ এবং বিশ্ব ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক প্রতিনিধি ড্যানড্যান চেন স্বাক্ষর করেন।

অনুষ্ঠানে ইআরডি সচীব মনোয়ার আহমেদ বলেন, বিশ্ব ব্যাংকের এ সহায়তায় সার্বিকভাবে পশুপালন ও দুগ্ধখাতের উন্নয়ন করা হবে।

একইসঙ্গে এ ঋণের অর্থ দিয়ে দেশের ২০ লাখ ক্ষুদ্র ও মাঝারি কৃষি উদ্যোক্তা পরিবারকে আরও ভালো বাজারে প্রবেশ করতে সহযোগিতা দেওয়া হবে।

এসময় তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের প্রকল্প বাস্তবায়ন সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন বৈদেশিক সহায়তাপুষ্ট প্রকল্পগুলো দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে বিশ্ব ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক প্রতিনিধি ড্যানড্যান চেন বলেন, “এখাতে বাংলাদেশের বাজার চাহিদা অনুযায়ী উৎপাদন বাড়াতে এ প্রকল্প উল্লেখযোগ্য অবদান রাখতে পারবে।”

প্রকল্পটি দেশের পুষ্টি চাহিদা পূরণে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলেও আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রকল্পটির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে সুষমখাদ্য এবং উন্নত স্বাস্থ্য ও প্রজনন সেবা দেওয়ার মাধ্যমে পারিবারিক পর্যায়ে গবাদি পশুর উৎপাদন বৃদ্ধি করা।

প্রকল্পটি বাস্তবায়নের মাধ্যমে উৎপাদন বৃদ্ধি, বাজারজাত ও মূল্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন, পশুপালন খাতে জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি কমানো হবে। মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয় প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে।

Print Friendly, PDF & Email