প্রিয়তী হবেন ‘মাসুদ রানা’র রূপা

বিনোদন প্রতিবেদক : ‘মাসুদ রানা’ সিনেমায় মাসুদ রানা চরিত্রে ‘মেন’স ফেয়ার অ্যান্ড হ্যান্ডসাম’ চ্যাম্পিয়ন রাসেল রানার নাম ঘোষণা করা হয়েছে বেশ আগেই। আগামী ২ মে থেকে ছবিটির শুটিং শুরুর কথা। এখনো ছবিটির গুরুত্বপূর্ণ অনেকগুলো চরিত্র চূড়ান্ত হয়নি। তবে ছবির রূপা চরিত্রটি করার নাম শোনা যাচ্ছে মিজ আয়ারল্যান্ডখ্যাত বাংলাদেশি মডেল মাকসুদা আক্তার প্রিয়তীর। ছবিটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র বলছে, ছবির প্রযোজক আবদুল আজিজের সঙ্গে প্রিয়তীর দেখা হয়েছে। গল্প, চরিত্র নিয়ে কথা হয়েছে। চরিত্রটি করতে প্রিয়তী রাজিও আছেন। বিষয়টি মোটামুটি চূড়ান্ত।

প্রিয়তী আয়ারল্যান্ডেই থাকেন। বর্তমান বাংলাদেশে আছেন এই মডেল। ‘মাসুদ রানা’ ছবিতে কাজের সত্যতা জানতে প্রিয়তীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। খানিকটা রহস্য রেখেই এ ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘আমি যদি কাজ করি, তাহলে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে আমার নাম প্রকাশ করবে। আমার মনে হয়, আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিলে কাজ করছি কি না, সেটা চূড়ান্ত হওয়া ভালো। তাঁরা সময়মতো ঘোষণা দেবেন। সুতরাং তত দিন অপেক্ষায় থাকি।’ বিষয়টি নিয়ে প্রিয়তী রহস্যের মধ্যে রাখলেও ছবির প্রযোজক আবদুল আজিজ খানিকটা খোলসা করেছেন। প্রিয়তীর কাজের ব্যাপারে এই প্রযোজক বলেন, ‘ছবিটিতে কাজের বিষয়ে প্রিয়তীর সঙ্গে আমার আলোচনা হয়েছে। গল্প, চরিত্র পছন্দ করেছেন। তিনি আয়ারল্যান্ড থাকেন। শুটিংয়ের সময় সেখান থেকে যাওয়া–আসাসহ মোট পারিশ্রমিক কেমন হবে, সেটি চূড়ান্ত হয়নি এখনো।


এ কারণে তাঁর কাজ এখনই চূড়ান্ত বলছি না।’ ছবির পরিচালক সৈকত নাসিরও এ ব্যাপারে মুখ খোলেননি। তিনি বলেন, ‘আমিও শুনেছি। চূড়ান্ত ঘোষণা আসবে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে। তবে রূপা চরিত্র প্রসঙ্গে এই পরিচালক জানান, ‘মাসুদ রানা’ ছবির চারটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রের একটি রূপা। এটি একটি গোয়েন্দা এজেন্টের চরিত্র।

প্রায় ২০ বছর ধরে আয়ারল্যান্ডে বাস করছেন ঢাকার ফার্মগেটে জন্ম নেওয়া প্রিয়তী। জন্মের কয়েক বছরের মধ্যেই বাবাকে হারানোর পর মায়ের চেষ্টায় কিশোরী বয়সে পাড়ি জমান আয়ারল্যান্ডে। সেখানে পড়াশোনা, পাইলট হওয়ার প্রশিক্ষণ, মডেলিং, অভিনয়সহ নানা ধরনের সামাজিক কাজের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়েন তিনি। ২০১৪ সালে আয়ারল্যান্ডের সুন্দরীদের মধ্যে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়ে মিজ আয়ারল্যান্ড খেতাব পান।

Print Friendly, PDF & Email