ফিক্সিংকে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে গণ্য করার প্রস্তাব

নিজস্ব ডেস্ক : ভদ্র লোকের খেলা ক্রিকেটকে দীর্ঘদিন থেকেই কলঙ্কিত করে আসছে ম্যাচ ফিক্সিং। যদিও এই ফিক্সিংয়ের দায়ে শাস্তি দেওয়ার ক্ষেত্রে বিচিন্ন দেশগুলো তেমন কোনো আইন রাখেনি। ফলে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) এককভাবে শাস্তি দেওয়ার ক্ষেত্রে বেশ সীমাবদ্ধতায় পড়ে। আর এ কারণে ফিক্সিংকে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে গণ্য করার জন্য আহ্বান জানিয়েছে আইসিসি।

ফিক্সিংয়ের অপরাধে দায়ী ব্যক্তিকে দেশের আইনের আওতায় শাস্তি দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন ক্রিকেট খেলুড়ে দেশ কিংবা যেসব দেশের বাজিকরদের দৌরাত্ম্য রয়েছে সেসব দেশে ফিক্সিংকে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে গণ্য করার জন্য আন্তরিকভাবে প্রস্তাব করেছেন।

সম্প্রতি ভারতের এক সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে আইসিসি সিইও ডেভ রিচার্ডসন বলেন, ‘ফিক্সিংয়ের মাধ্যমে ক্রিকেটকে কলুষিত করতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পরিভ্রমণ করে বেড়ানো বাজিকরদের দৌরাত্ম্য থামাতে আকসু (আইসিসি অ্যান্টি করাপশন ইউনিট) আরও কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা বিভিন্ন দেশের সরকারকে আহ্বান করবো যাতে ক্রিকেটে ফিক্সিং করাকে ফৌজদারি অপরাধের আওতায় নিয়ে আনা হয়।’

সাম্প্রতিক আইসিসি সংশ্লিষ্ট একাধিক ব্যক্তির নাম জড়িয়েছে ফিক্সিংয়ের মতো কেলেঙ্কারিতে। আর এতেই আইসিসি জুড়ে উঠেছে ঝড়। এমনকি শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি সনাথ জয়াসুরিয়ার বিরুদ্ধেও এই অভিযোগ উঠেছে।

ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-২০ লিগগুলোতে ফিক্সিংয়ের প্রকপ সবচেয়ে বেশি। তাই এসব লিগে খেলতে আসা ক্রিকেটারদের নিরাপদ রাখতেই আইসিসির এমন প্রস্তাব।

Print Friendly, PDF & Email