মুসলমান হওয়ার কারণ বললেন কানাডার মডেল

নিজস্ব ডেস্ক প্রতিবেদক : ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন কানাডার মডেল রোজি গ্যাব্রিয়েল। তিনি একজন পর্যটকও। ধর্ম পরিবর্তনের মতো এত বড় সিদ্ধান্ত কেন নিলেন সেটাও জানালেন এই মডেল।

গত বছর পাকিস্তান ভ্রমণে গিয়েছিলেন রোজি গ্যাব্রিয়েল। এরপর চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি নিজের ইনস্টাগ্রাম পেজে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের ঘোষণা দেন তিনি।

ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেন রোজি। যেখানে তাকে মাথায় ওড়না ও সালোয়ার কামিজ পরিহিত হাস্যজ্জ্বল দেখা যাচ্ছিল। এছাড়া তার হাতে ‘দ্য ম্যাসেজ অব কোরআন’ নামে একটি বই ছিল।

কেন মুসলমান হয়েছেন সে বিষয়েও ব্যাখ্যা দিয়েছেন এই কানাডিয়ান মডেল ও পর্যটক।

ইনস্টাগ্রামে রোজি লিখেন, ‘গত বছর আমার জীবনের কঠিনতম বছর ছিল। জীবনের সমস্ত চ্যালেঞ্জ আমাকে এই অবস্থায় নিয়ে এসেছে। আমি ছোটবেলা থেকেই সৃষ্টিকর্তা আর তার সৃষ্টি নিয়ে ভাবতাম। সৃষ্টিকর্তার সঙ্গে আমার সম্পর্ক অনুভব করতাম। কিন্তু আমার পথ কঠিন ছিল। সারা জীবন প্রচুর কষ্ট পেয়েছি। কষ্ট পেলে ক্ষোভ থেকে সৃষ্টিকর্তাকে প্রশ্ন করতাম, কেন আমাকে তিনি কষ্ট দিচ্ছেন। শেষ পর্যন্ত আমি এই সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পেরেছি যে, সব কিছুই নির্ধারিত। এমনকি আমার কষ্টগুলো আসলে তার দেয়া উপহার।’

কানাডিয়ান এই মডেল আরও বলেন, ‘আমি চার বছর আগে আমার ধর্ম বিষয়ে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছিলাম। আমি আমার সাবেক ধর্মের নিন্দা করতাম। তবে আমি আধ্যাত্মিকতার পথ অবলম্বন করেছিলাম। সেই কৌতূহল এবং সংযোগটি আরও জোরদার হয়েছে। এখন আমার আর ভয় নেই। আর এভাবেই আমার যাত্রা শুরু হয়েছিল। আমি আমার সঠিক ধর্মকে আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়েছি।’

তিনি জানান, গত এক দশক ধরে মুসলিম দেশগুলো ভ্রমণ করে ইসলামকেই একমাত্র শান্তির ধর্ম বলে মনে হয়েছে।

বলেন, ‘আমি মনে মনে শান্তি, ক্ষমা এবং সবার সঙ্গে সবচেয়ে গভীর সংযোগ চাইছিলাম। আর এভাবেই আমার যাত্রা শুরু হয়েছিল। সৃষ্টিকর্তা আমাকে পাকিস্তানে নিয়ে এসেছিলেন। আমার বেদনা ও অহংকার দূর করে দিয়েছেন।’

ইসলাম যে শান্তির ধর্ম তার ব্যাখ্যায় রোজি গ্যাব্রিয়াল বলেন, দুর্ভাগ্যবশত পশ্চিমারা ইসলামকে ভুলভাবে উস্থাপন করছেন।তারা ইসলাম নিয়ে ভুল ধারণা পোষণ করছেন।

তিনি বলেন, ‘সকল ধর্মের মতো ইসলামেও অনেক ব্যাখ্যা রয়েছে। ইসলামের আসল অর্থ শান্তি, ভালবাসা এবং একত্ববাদ। অন্য সব ধর্মও শান্তির বার্তা দেয়। কিন্তু ইসলাম শুধু ধর্ম নয়, একটি জীবনবিধান। যেটা মানবতার জীবন, নম্রতার জীবন এবং ভালবাসার জীবন। আমি এখন একজন মুসলমান। কলেমা শাহাদাতের মাধ্যমে আমি আল্লাহুর প্রতি নিজেকে উৎসর্গ করে শান্তির পথে জীবন কাটানোর শপথ নিয়েছি। এখন বিশ্বের জেগে ওঠা দরকার।’

Print Friendly, PDF & Email