মেট্রোরেল কীভাবে চলবে দেখাতে ঢাকায় মকআপ ট্রেন

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক : সময় যত যাচ্ছে, মেট্রোরেল পথ ততটাই দৃশ্যমান হচ্ছে। পিয়ারগুলো মাথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে। সেগমেন্টও বসছে একের পর এক। রাজধানী ঢাকার উত্তরা থেকে মতিঝিলের দিকে দ্রুতই এগিয়ে যাচ্ছে মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজ। কিন্তু কেমন হবে মেট্রোরেলের ট্রেনগুলো? কীভাবে, কোন নিয়মে টিকিট কেটে ট্রেনে ভেতরে যেতে হবে? বসার ব্যবস্থা কেমন? মেট্রোরেলের কাজ এগোনোর সঙ্গে সঙ্গে এমন অসংখ্য প্রশ্ন হয়তো ঢাকাবাসীসহ সবার মধ্যেই জাগছে। কৌতূহলী অগণিত মানুষকে এর উত্তর জানাতে আনা হয়েছে মেট্রোরেলের মকআপ ট্রেন। সহজ বাংলায় এটিকে নমুনা ট্রেন বলা যেতে পারে।

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল) কর্তৃপক্ষ জানায়, মেট্রোরেল প্রকল্পের প্যাকেজ-৮ (রোলিং স্টক রেল কোচ ও ডিপো ইকুইপমেন্ট সংগ্রহ)–এর আওতায় জাপানে বগি নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে ২০১৯ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি। মেট্রোরেল সম্পর্কে সম্যক ধারণা দেওয়ার জন্য ২০১৯ সালের ২৬ ডিসেম্বর নমুনা ট্রেনটি বা মকআপ ট্রেন আনা হয়েছে। এ জন্য উত্তরা দিয়াবাড়ির মেট্রোরেল ডিপো এলাকায় মেট্রোরেল প্রদর্শনী ও তথ্যকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। আগামী মার্চ মাসে এটি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

ডিএমটিসিএল কর্তৃপক্ষ জানায়, চলতি বছরের ১৫ জুন মেট্রো ট্রেনের প্রথম সেট জাপান থেকে দেশে আসতে পারে। মেট্রো ট্রেন পৌঁছানোর পর ইন্টিগ্রেটেড টেস্ট এবং ট্রায়াল রান শুরু করা হবে।

আজ সোমবার ডিএমটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুহাম্মদ আবু নূর সিদ্দিক বলেন, দিয়াবাড়িতে মেট্রোরেল প্রদর্শনী ও তথ্যকেন্দ্র নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। এখানে মকআপ ট্রেন বসানো হয়েছে। এটি ট্রেনের ডামি কোচ। মেট্রো ট্রেনের ভেতর ও বাইরের অংশ কেমন হবে, এটি দেখলে ধারণা পাওয়া যাবে। তা ছাড়া টিকিট কাটাসহ আরও বিষয় রয়েছে। এগুলোও মেট্রোরেল প্রদর্শনী ও তথ্যকেন্দ্র থেকে জানা যাবে।

ডিএমটিসিএল কর্তৃপক্ষ জানায়, গত জানুয়ারি মাস পর্যন্ত উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ২০ দশমিক ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ প্রথম মেট্রোরেলের নির্মাণকাজের সার্বিক অগ্রগতি হয়েছে ৪০ দশমিক ৩৬ শতাংশ। এর মধ্যে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত অংশের কাজের ৬৮ শতাংশ এবং আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশের কাজের ৩৬ শতাংশ কাজের অগ্রগতি হয়েছে। ২০২১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মেট্রোরেলের উদ্বোধন করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email