যৌন চাহিদা মেটানোর প্রবণতা বাড়ছে অনলাইনে

নিজস্ব ডেস্ক প্রতিবেদক : কোকেনের মতো কিছু মাদক গ্রহণের ফলে শারীরিক মিলনের ইচ্ছা অনেক বেড়ে যায়। এমনকি শারীরিক মিলনে আনন্দের তীব্রতা বেড়ে যায় বলেও জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

সম্প্রতি গে মেন্স হেলথ প্রজেক্টের অধীনে একটি জরিপ চালানো হয়। তাতে দেখা যায়, লকডাউনের মধ্যে সমকামিতা বেড়ে গেছে। বিশেষ করে তারা অনলাইনে সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

জরিপে অংশ নেওয়া ৫০ শতাংশ সমকামী জানায়, বর্তমানে তারা ভার্চুয়ালি যৌন আকাঙ্ক্ষা পূরণ করছেন।

বিশেষ করে মিলনের সময়ের নানা রকমের শব্দ তাদের পছন্দ বলে জানিয়েছেন। আর এ ধরনের আচরণের ফলে গণেরিয়া হওয়ার আশঙ্কা নেই বলেও মনে করেন তারা।

তবে মাদক ব্যবহারের ফলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের অভিমত লকডাউনের মধ্যে তারা এভাবে একাকীত্ব কাটিয়ে উঠতে পারছেন। এভাবে শারীরিক মিলন সুস্থ কোনও প্রক্রিয়া হতে পারে না বলেও মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

জানা গেছে, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার কারণে লকডাউনের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় সমকামীদের যৌন চাহিদা পূরণের হার বেড়েছে।

এশিয়ার কিছু দেশেও এ ধরনের প্রবণতা শুরু হয়েছে। ইন্ডিপেন্ডন্ট।