যৌন স্পর্শ, হেল্পলাইনে ফোন করে বাবাকে ধরিয়ে দিলো মেয়ে

নিজস্ব ডেস্ক প্রতিবেদক : নিজের মেয়ের শ্লীলতাহানির অভিযোগে গ্রেফতার করা হল বাবাকে। নাবালিকা মেয়েটি শিশুদের হেল্পলাইনে ফোন করে বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানোর পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ভারতের জয়পুরে ঘটেছে এই ঘটনা।

১৩ বছরের শিশুটি জানিয়েছে, মাসখানেক আগে উত্তরপ্রদেশ থেকে এসে সানগানের এলাকায় ভাড়া বাড়িতে বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকতে শুরু করে ওই কিশোরী। গত ২ মাস ধরে তার শ্লীলতাহানি করছে বাবা। কাউকে এ কথা জানালে মেয়েকে কঠিন মূল্য চোকাতে হবে বলে হুমকিও দিয়েছে সে।

সানগানের থানার কর্মকর্তা লখন সিং জানিয়েছেন, অভিযোগে মেয়েটি জানিয়েছে যে তার বাবার মদ্যপানে আসক্তি রয়েছে। সে রোজ মেয়েকে মারধর করত। মৌখিক ও শারীরিকভাবেও নিগ্রহ করত। কিন্তু গত দু মাস ধরে এই অত্যাচার সহ্যের বাইরে চলে যায় কারণ লোকটি আপত্তিকরভাবে স্পর্শ করতে শুরু করে মেয়েকে। এরপরই মেয়েটি শিশুদের হেল্পলাইনে ফোন করে অভিযোগ জানায়।

মেয়েটির মা ও অন্যান্য আত্মীয়রা সব জানা সত্ত্বেও তাকে সাহায্য করেনি বলে অভিযোগ। পুলিশের কথায়, ‘বাবার আপত্তিকর আচরণের কথা মায়ে জানিয়েছিল বলে আমাদের বলেছে মেয়েটি। কিন্তু মা সব জেনেও নাকি চুপ থাকত। আত্মীয়রাও তাই করত। তাই নিগ্রহ থেকে বাঁচতে সাহস করে নিজেই হেল্পলাইনে ফোন করে কিশোরী।’

কয়েক বছর আগে মেয়েটিকে স্কুল থেকে ড্রপ আউট করানো হয়েছিল বলেও অভিযোগ। এই অভিযোগ পেয়ে ৪৯ বছরের অভিযুক্ত বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Print Friendly, PDF & Email