‘সবার উত্তর তো দিতে পারব না,বাকিদের জিজ্ঞেস করুন’

ক্রীড়া প্রতিবেদক : সাকিব আল হাসানের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিংও বলছে উইকেটে কোনো জুজু ছিল না। সাকিব পারলে বাকিরা কেন পারলেন না?

সাকিব আল হাসান কি একটু বিরক্ত? একপলকে মুখটা দেখে সে রকমই মনে হলো। কিছু কিছু মানুষ আছে, মনের অভিব্যক্তি সহজে লুকিয়ে রাখতে পারে না। সাকিব বোধ হয় সেই দলের। শুরু থেকে চাঁছাছোলা কথা বলার কারণে নানা সময়ে শিরোনামও হয়েছেন। ইদানীং কিছুটা বদলেছেন, তবে ভণিতা না করে মনের কথাটা সরাসরি বলে ফেলাদের দলে সাকিব এখনো আছেন।

আর কোনো অধিনায়ক হলে, ধরুন মাশরাফি বিন মুর্তজার কথাই, মাশরাফি হয়তো আড়াল করার চেষ্টা করতেন। সংবাদ সম্মেলনে বারবার ঘুরে ফিরে বলতেন, এটা এক ম্যাচের ব্যর্থতা। এক ম্যাচের ভুল মানেই তো সব নয়।

কিন্তু সাকিবের দর্শন হলো, ভুল ভুলই। সে এক ম্যাচেরই হোক না কেন। ভুলটাকে আগে স্বীকার করতে হবে। রোগ নির্ণয়ের পরই না চিকিৎসা! আজ সাকিব সংবাদ সম্মেলনে এলে কী বলতেন; তা কেবল অনুমানের ওপর নির্ভর করতে হচ্ছে। সাকিব যে এই ম্যাচের আগে এবং পরে অধিনায়কের নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এলেনই না!

গতকাল সংবাদ সম্মেলনে আসেননি পায়ের ব্যথায়। আজ তাঁর না আসার কারণ একটাই হতে পারে, মনের ব্যথা! সাকিবের বদলে সংবাদ সম্মেলনে আসা ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জির কাছে জানতে চাওয়া হলো, প্রথম তিন ব্যাটসম্যান আউট হওয়ার পরও ব্যাটসম্যানরা ভুলটা থেকে শিখল না কেন? একই রকম আউট! সাকিবকে সঙ্গ না দেওয়ার একই রকম ভুল! ম্যাকেঞ্জি দুটি উত্তর খুঁজে পেলেন। অনেক দিন পর টি-টোয়েন্টি খেলতে নামা; এবং অতি আত্মবিশ্বাস।

ক্যারিবীয় পেসাররাও এমন আহামরি বল করেছে বলে মনে করেন না ম্যাকেঞ্জি। কোনো বাউন্সারকেই ‘ডেঞ্জারাস’ মনে হয়নি তাঁর। ভুল যদি হয়ে থাকে, সেটি শট নির্বাচনে।

এই উইকেটে যে কোনো জুজু নেই, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিংয়েই তার প্রমাণ। ৫৫ বল হাতে রেখে জিতেছে তারা। বল হাতে রেখে জয়ের নতুন রেকর্ড ক্যারিবীয়দের। ম্যাচ টিকিটের ৫০ শতাংশ টাকা ফেরত চাইতেই পারেন যেকোনো দর্শক! আগের সূচিতে ম্যাচ শুরুর কথা ছিল ৪টায়। কেউ নতুন সূচি না জেনে টিভি খুলে বসে থাকলে নিশ্চিত বোকা বনেছে। চারটা বাজার ঢের আগেই যে ম্যাচ শেষ!

উইকেটে যে কোনো জুজু ছিল না, তার প্রমাণ সাকিবের ব্যাটিং। ৮টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন। বাকি ১০ জন মিলে মোটে ৭ চার! সাকিব পারলে বাকিরা পারল না কেন?

সংবাদ সম্মেলন এড়াতে পারলেও ম্যাচ শেষের পুরস্কার বিতরণীতে হাজির হতেই হয়েছিল সাকিবকে। সেখানে হতাশ বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেছেন, ‘আজ টস ছাড়া বাকি সবকিছুই ভুলের খাতায় গেছে। ভালো ব্যাট করতে পারিনি, ভালো বোলিংও করতে পারিনি। উইকেট বেশ ভালোই ছিল। এখানে ১৭৫ রান করা উচিত ছিল কমপক্ষে। বাকি ব্যাটসম্যানদের জিজ্ঞেস করুন কেন তারা ভালো ব্যাট করতে পারল না। সবার হয়ে তো আর আমি উত্তর দিতে পারব না। তবে যেটা বললাম, কিছুই আজ আমাদের পক্ষে যায়নি। যেটাই করতে চেয়েছি কাজে লাগেনি। এই ম্যাচ থেকে তাই অনেক কিছু শিখতে হবে।’

Print Friendly, PDF & Email