হাসপাতালে রোগী ভর্তির চিত্র দেখলেই ওষুধের কার্যকারিতা বোঝা যায় : হাইকোর্ট

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক : বছরজুড়ে এডিস মশা নিধন ও ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সরকারের কোন কর্মপরিকল্পনা রয়েছে কিনা তা জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট। বিষয়টি জেনে আগামী সোমবার আদালতকে অবহিত করতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ মঙ্গলবার এই আদেশ দেন।

আদালত বলেছে, এ বছর যেহেতু মশার প্রকোপ দেখা দিয়েছে সেটা যে আগামীতে হবে না তার তো কোন নিশ্চয়তা নাই। এজন্য মশা নিধন ও ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সরকারের কর্মপরিকল্পনা থাকা দরকার। যেমনটা কলকাতায় রয়েছে। তারা মশা নিধনে এরিয়াল স্প্রে করে থাকে। আদালত বলেন, মশা নিধনে সিটি করপোরেশনগুলো নতুন ওষুধ ছিটাচ্ছে। কিন্তু এ বছর অনেক আগে থেকেই বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করেছিলো এডিশ মশার প্রকোপ নিয়ে। কিন্তু সিটি করপোরেশনগুলো তা আমলে নেয়নি। এক্ষেত্রে দুই সিটির অবহেলা রয়েছে। শুরুতেই স্থান নির্ধারন করে মশা নিধনে পদক্ষেপ নেয়া উচিত ছিলো।

আদালত বলেন, হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে প্রতিদিন রোগী ভর্তি হচ্ছে। ভর্তিকৃত রোগীর সংখ্যা দেখলেই বোঝা যাচ্ছে ওই ওষুধ কতটা কার্যকর। যখন রোগী ভর্তি শূন্যের কোঠায় নেমে আসবে তখন প্রকৃত চিত্র বোঝা যাবে। যতক্ষণ পর্যন্ত হাসপাতালে রোগী ভর্তি বন্ধ না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের উদ্বেগ থাকবেই।

আরো পড়ুন: ধর্ষণের মামলা তুলে নিতে ঘুষ দেয়ার কথা স্বীকার রোনালদোর

এর আগে স্থানীয় সরকার বিভাগের পক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী মাইনুল হাসান আদালতে বলেন, মশক নিধনে ও সচেতনতা সৃষ্টিতে উত্তর সিটি করপোরেশনকে প্রায় ১৬ শত এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনকে ২২ শত অতিরিক্ত জনবল নিয়োগে আদেশ প্রদান এবং ১৫ কোটি টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে।

এ পর্যায়ে আদালত বলেন, মশা তো কমছে না। প্রতিদিনই প্রায় দুই হাজারের কাছাকাছি লোক ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে।

উত্তর সিটি করপোরেশনের আইনজীবী তৌফিক ইনাম টিপু বলেন, ৪০ হাজার লিটার নতুন ওষুধ ক্রয় করা হয়েছে। আগস্ট মাস থেকে এই ওষুধ ছিটানো হচ্ছে। আদালত বলেন, নতুন ওষুধে মশা কি মরছে? আইনজীবী বলেন, অনেকটা কার্যকর। আর আমরা যত তথ্য উপাত্ত দেই না কেন যতক্ষণ পর্যন্ত হাসপাতালে রোগী ভর্তি বন্ধ না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত কোন কিছুই ঠিকভাবে চলছে বলা যাবে না। আদালত বলেন, নতুন জনবল নিয়োগ করেছেন তারা কোথায় কিভাবে কতক্ষণ কাজ করছে তার বিস্তারিত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করবেন। দুই সিটি করপোরেশনকে সোমবার এই প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

Print Friendly, PDF & Email