ঢাকা,রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ৬ ফাল্গুন ১৪২৪, ২ জমাদিউস সানি ১৪৩৯ ঢাকা,শুক্রবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ২৭ মাঘ ১৪২৪, ২ জমাদিউস সানি ১৪৩৯
ব্রেকিং নিউজ:
দুর্নীতিবাজদের পরিণতি হবে খালেদা জিয়ার মতো : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নয়াবার্তা প্রতিবেদক : দুর্নীতিবাজদের সাজার কথা উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, যতই প্রভাবশালী হোক, দুর্নীতি করলে তাকে সাজা পেতেই হবে। তাদের পরিণতি হবে খালেদা জিয়ার মতো। এ সময় তিনি বেগম জিয়ার পরিণতি থেকে দুর্নীতিবাজদের শিক্ষা নিতে বলেন।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর উত্তরায় ইউনাইটেড ইসলামিক পার্টি আয়োজিত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কামাল বলেন, দুর্নীতি করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না; সেটার প্রমাণ একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রীর জেলে যাওয়া।

তিনি বলেন, দেশ জঙ্গি ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে সরকার যেমন সফল হয়েছে, তেমিন এ দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করে সোনার বাংলা গড়তে কাজ চলছে। ওলামা মাশায়েখদের মসজিদে জঙ্গি, সন্ত্রাসের পাশাপাশি দুর্নীতি ও মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলারও অনুরোধ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গি, মাদক ও দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়তে সরকার বদ্ধপরিকর। সেই লক্ষ্য নিয়েই দেশ এগোচ্ছে।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলার রায় সরকার লিখে দিয়েছে- বিএনপির এমন অভিযোগের বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন কথা। এই মামলা বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই চলছে। তার মধ্যে অনেকবার কোর্ট ও বিচারক পাল্টানো হয়েছে বেশ কয়েকবার। সুতরাং এটা নিয়ে কথা না বললেই হয়। তবে উচ্চ আদালতে আপিলের যেহেতু সুযোগ আছে তিনি (খালেদা জিয়া) সেখানেও যেতে পারেন। বিচারকরা স্বাধীনভাবে কাজ করছেন এবং ভবিষ্যতেও কাজ করে যাবেন।

এই রায়কে ঘিরে সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য সৃষ্টির কোনো সুযোগ নেই জানিয়ে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কেউ যদি নৈরাজ্য করার পাঁয়তারা করে তাহলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি সাধারণ জনগণ তা প্রতিহত করবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, এই দেশে দুর্নীতির দায়ে সাবেক প্রধানমন্ত্রী জেলে। একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে এটা ভাবতে আমার লজ্জা লাগে।

তিনি বলেন, বিএনপির লজ্জা না লাগতে পারে, তবে এটা আমাদের জন্য লজ্জার বিষয়। খালেদা জিয়ার জেলে যাওয়া দেখে সব রাজনৈতিক কর্মীকে শিক্ষা নিতে হবে।

আলেমদের উদ্দেশে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মানুষ ধর্মভীরু হলেও তারা জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসকে সমর্থন করে না।

কওমি মাদ্রাসার কেউ জঙ্গিবাদে জড়িত নয় মন্তব্য করে কামরুল বলেন, ইংরেজি শিক্ষায় শিক্ষিতরাই এখন জঙ্গিবাদে জড়াচ্ছে।

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন এবং ইউনাইটেড ইসলামিক পার্টির নেতারা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *