জনগণের স্বার্থে তথ্য নিয়ে আসা চুরি নয় : ডা. জাফরুল্লাহ

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক : গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, জনগণের কণ্ঠরোধ করাই রোজিনা ইসলামের সঙ্গে হওয়া ঘটনার কারণ। জনগণকে সত্য জানানোর জন্য, জনগণের স্বার্থে ও কল্যাণে যে কোনো রাষ্ট্রীয় তথ্য নিয়ে আসা বা ছবি তোলা চুরি নয়। সেটা একটা দায়িত্ব পালন।

মঙ্গলবার সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে আটক রেখে নির্যাতন ও গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাংলাদেশ ছাত্র, যুব ও শ্রমিক অধিকার পরিষদ আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, আমলাদের মিষ্টি কথায় ভুলবেন না। অবিলম্বে রোজিনা ইসলামকে মুক্তি দিন এবং সত্য প্রকাশের সাহসিকতা, ন্যায়নীতি ও যেভাবে স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতি তুলে ধরেছেন সেজন্য তাকে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পুরস্কার স্বাধীনতা পদক দিন। যে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তার সঙ্গে অন্যায় করেছেন, তাদের অবিলম্বে জেলে পাঠান। একই সঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের প্রতিবাদ করে যেসব ছাত্র জেলে গেছেন, তাদের মুক্তির দাবিও জানান তিনি।

সমাবেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, সাংবাদিকদের ভয় দেখিয়ে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়। সরকারের রোষানল থেকে আজ সাংবাদিকরাও নিরাপদ নয়। একজন সিনিয়র সাংবাদিককে এভাবে হেনস্তা করা হয়েছে বাকি সাংবাদিকদের মনে ভয় ঢুকিয়ে দেওয়ার জন্য। সাংবাদিকরা চুপ থাকলেই সরকারের সুবিধা। তাই সাংবাদিকদের ভয় দেখিয়ে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়। যাতে তারা সরকারের বিভিন্ন দুর্নীতি ও অনিয়মের খবর প্রকাশ করতে না পারে।

সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন- ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রাশেদ খান, যুগ্ম আহ্বায়ক আরিফুল ইসলাম আদীব, যুব অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক তারেক রহমান, যুব অধিকার পরিষদের সদস্য সচিব মঞ্জুর মোর্শেদ এবং শ্রমিক পরিষদের আহ্বায়ক আব্দুর রহমান ও সদস্য সচিব আরিফ হোসেনসহ ছাত্র, যুব, শ্রমিক অধিকার পরিষদের বিভিন্ন নেতাকর্মী।