ভাগ্নিকে খুঁজতে আসা মামিকে ‘দলবেঁধে ধর্ষণ,’ আটক ২

নিজস্ব জেলা প্রতিবেদক : কুড়িগ্রামে ভাগ্নিকে খুঁজতে যাওয়া মামিকে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। জেলার পুলিশ সুপার মেহেদুল করিম জানান, চিলমারী উপজেলার কড়াই বরিশাল চরে বৃহস্পতিবার রাতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন ওই এলাকার রঞ্জু মিয়া (৫২) ও জেল হক (৪৫)।

পুলিশ সুপার শুক্রবার সাংবাদিকদের বলেন, গত ২৮ মার্চ ওই নারীর ভাগ্নি (২২) নিজে নিজে এক ব্যক্তিকে বিয়ে করে বাড়ি থেকে চলে যান। রঞ্জু তাকে খুঁজে বের করার আশ্বাস দেন। তার কথামত ওই নারীসহ পরিবারের চার সদস্য টাঙ্গাইলের বাড়ি থেকে চিলমারী আসেন। জেল হক মাঝির নৌকায় করে রঞ্জু তাদের কড়াই বরিশাল চরে নিয়ে যান।

“বুধবার রাত ৮টায় অন্য তিনজনকে নৌকায় রেখে রঞ্জু ওই মামিকে নিয়ে যান তার ভাগ্নির সঙ্গে দেখা করিয়ে দেওয়ার কথা বলে। তারপর খোলা চরে নিয়ে রঞ্জু ও মাঝি জেল হক তাকে ধর্ষণ করেন। পরে মোবাইলে আরও দুইজনকে ডেকে আনেন। তারাও ধর্ষণ করেন। ঘটনা চেপে না গেলে তাকে হত্যার ভয় দেখানো হয়। পরদিন ভোরে ৯৯৯ নম্বরে কল করে সহযোগিতা চান ওই মামি।”

খোঁজখবর নিয়ে রাতে অভিযান চালানো জয় বলে জানান পুলিশ সুপার।

তিনি বলেন, মামিকে চিলমারী হাসাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় চিলমারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। পুলিশ অন্য দুইজনকে ধরতে সাঁড়াশি অভিযান চালাচ্ছে।