সবজির ট্রাকে ১০ বিদেশি পিস্তল, গুলি ও ফেন্সিডিল

নিজস্ব জেলা প্রতিবেদক : বগুড়ায় আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি ও ফেন্সিডিল পরিবহনকালে সবজিবোঝাই ট্রাকসহ ৩ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বগুড়া আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) একটি টিম বুধবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে জেলার কাহালু উপজেলার ভাগদুবরা এলাকায় নওগাঁ-বগুড়া সড়ক থেকে ট্রাকটি আটক করে। ট্রাকের ভেতর থেকে ১০টি বিদেশি পিস্তল, ১০ রাউন্ড গুলি ও ১৩৬ বোতল ফেন্সিডিল জব্দ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো-জয়পুরহাট জেলা সদরের ভাদশা লালীপাড়ার রফিকুল ইসলামের ছেলে ছোটন (২৪), ট্রাক চালক জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর উপজেলার কেশপুর গ্রামের বাবু মণ্ডলের ছেলে কাবিল হোসেন (৩২) ও ট্রাকের হেলপার নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলার কার্তিকাহা গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে সেভেন হোসেন (২৮)।

অস্ত্র ও মাদকসহ জব্দ করা ‘স্নেহা’ নামে ওই ট্রাকের মালিক জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর উপজেলার প্রভাবশালী এক আওয়ামী লীগ নেতার বলে জানা গেছে। একাধিক সূত্র জানায়, ট্রাক মালিক সেই আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক ব্যবসার অভিযোগ রয়েছে। তবে পুলিশ এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানাতে পারেনি।

ওই অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া বগুড়া আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের ইন্সপেক্টর সন্তু বিশ্বাস জানান, নওগাঁর বদলগাছি থেকে পটল নিয়ে ‘স্নেহা’ পরিবহনের একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-২০-৫৬৮০) আক্কেলপুর-দুপচাঁচিয়া সড়ক হয়ে নওগাঁ-বগুড়া সড়ক দিয়ে ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। তবে ওই ট্রাকটিতে আগ্নেয়াস্ত্র ও মাদক আছে- গোপন সূত্রে এমন খবর পেয়ে এপিবিএনের একটি টিম বগুড়ার কাহালু উপজেলার ভাগদুবরা এলাকায় অবস্থান নেয়। বিকেল সোয়া ৪টার দিকে ট্রাকটি ওই এলাকায় পৌঁছালে সেটি থামানো হয়। এরপর তাতে অভিযান চালানো হয়।

সন্তু বিশ্বাস বলেন, ট্রাকের ওপর ছোটন নামে এক ব্যক্তি একটি ব্যাগ নিয়ে বসা ছিল। তার ব্যাগের ভেতর থেকেই ১০টি বিদেশি পিস্তল, ১০ রাউন্ড গুলি ও ১৩৬ বোতল ফেন্সিডিল পাওয়া গেছে। গুলি, আগ্নেয়াস্ত্র ও মাদকগুলোর মালিক কে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘তাৎক্ষণিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক ছোটন জানিয়েছে জনৈক এক ব্যক্তি তাকে ওই ব্যাগসহ ট্রাকে তুলে দেয়। সে বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার বেড়াগ্রাম থেকে ট্রাকে ওঠে।’ জব্দ করা ‘স্নেহা’ নামে ওই ট্রাকের মালিক সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে বিআরটিএ-তে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। তার আগে নিশ্চিত করে কিছু বলা যাবে না।’

বগুড়া আর্মড পুলিশের অধিনায়ক (পুলিশ সুপার) মো. জয়নুল আবেদীন জানান, অস্ত্র, গুলি এবং মাদকসহ ট্রাক আটকের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে।