ঘরে স্ত্রীর লাশ, বিছানায় মুমূর্ষু স্বামী

নিজস্ব জেলা প্রতিবেদক : চাঁদপুর শহরের মিশন রোডের খান বাড়ির পাশে দর্জি বাড়িতে ইসলামী ব্যাংকের ম্যানেজার মো. আব্দুর রব খানের বাসার দ্বিতীয়তলায় ভাড়া থাকতেন শাহানারা বেগম ও তার স্বামী শাহ আলম ভূঁইয়া। তাদের দুই ছেলে রানা ও রকি দুবাই প্রবাসী। একমাত্র মেয়ে তানিয়া স্বামীকে নিয়ে ইউরোপে থাকেন। দু’দিন আগে তারা করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়ে আসেন। রেজাল্ট পজেটিভ আসে। নিজ বাড়িতেই আইসোলশনে ছিলেন স্বামী-স্ত্রী। সোমবার সকালে করোনা আক্রান্ত স্ত্রী শাহানারা বেগম মৃত্যুবরণ করেন। স্ত্রীর লাশ ঘরের মধ্যে পড়ে থাকলেও নিজের অসুস্থতা নিয়ে মুমূর্ষু অবস্থায় বিছানাতেই শুয়ে ছিলেন স্বামী শাহ আলম।

করোনা আক্রান্ত হওয়ায় প্রতিবেশী ও স্বজনরা কাছে না আসায় স্ত্রীর মৃত্যুর খবরও কাউকে জানাতে পারেনি। বিষয়টি জানতে পেরে দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ। সঙ্গে সঙ্গেই জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশকে তিনি অবহিত করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই বিষয়টি জানতে পারেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল। তাৎক্ষণিকভাবে তিনি ‘আঞ্জুমানে খাদেমুল ইনসান’ এর এম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করে দেন। পরে এম্বুলেন্সের মাধ্যমে স্বামী শাহ আলমকে হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করা হয়। এবং স্বেচ্ছাসেবকের মাধ্যমে মৃত শাহানারা বেগমের দাফনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ বলেন, সকাল ১০টার দিকে শাহ আলমের এক প্রতিবেশী তাকে মুঠোফোনে ঘটনাটি জানান। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তিনি সেখানে গিয়ে তাদের উদ্ধারের জন্য এম্বুলেন্স জোগাড়ের চেষ্টা করেন। কিন্তু কোথাও এম্বুলেন্স না পেয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দুলাল পাটোয়ারীর সহায়তায় আঞ্জুমান খাদেমুল ইনসানের একটি এম্বুলেন্স দিয়ে লাশটি স্বজনদের কাছে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। তিনি বলেন, আমরা কখনোই চাই না এ ধরনের অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা ঘটুক। আর এই ধরনের ঘটনা থেকে রক্ষা পেতে হলে আরও সচেতন হতে হবে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি মানুষকে সচেতন করতে। কিন্তু সাধারণ মানুষের ভেতর এখনো অনেক অসচেতনতা বিরাজ করছে। আমাদের দেখলে অনেকে তাদের মাস্ক সঠিকভাবে পরিধান করে কিন্তু বাকি সময় মাস্ক ছাড়াই রাস্তাঘাটে চলাচল করছে। যা করোনা পরিস্থিতির জন্য বিপজ্জনক। ভ্রাম্যমাণ আদালতের ভয়ে নয়, নিজেদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই সকলকে আরও সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।