অপশন দুটি, ছেড়ে দেওয়া নয়তো লড়া: সাকিব

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ব্যাট হাতে অ্যান্টিগা টেস্টে খুবই বাজে ব্যাটিং করেছে বাংলাদেশ। দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ধসে যাওয়ার পথ ধরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ১০৩ রানে অলআউট হয়েছে দল। স্বাগতিকরা ২ উইকেট হারিয়ে তুলে ফেলেছে ৯৫ রান। প্রথম দিনই টেস্ট হাত ছাড়া দলের।

লাগাম ওয়েস্ট ইন্ডিজের হাতে থাকলেও বল হাতে মুস্তাফিজ-খালেদ-এবাদতরা দুর্দান্ত করেছেন। ক্যারিবীয়রা ৪৮ ওভার সাবলীল ব্যাটিং করতে পারেনি। বোলারদের লড়াকু মনোভাব ভালো লেগেছে দলের নতুন টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের। তার মতে, লড়াই করলে এই টেস্টে দেখার অনেক কিছুই মিলতে পারে।

প্রথম দিন শেষে সংবাদ সম্মেলনে সাকিব বলেন, ‘আমাদের সামনে অপশন দুটি। একটি হাল ছেড়ে দিয়ে ওরা যত ইচ্ছে রান করলো। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে আমরা ব্যাটিং করে খেলা শেষ হয়ে গেল। আরেকটি হচ্ছে ওদের দেড়শো, দুইশো, এমনকি আড়াইশো রানের মধ্যে আটকানোর চেষ্টা করা। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে ভালো করতে পারলে এখানকার কন্ডিশনে শেষ ইনিংসে যা কিছু হতে পারে।’

সাকিব জানান, দলের এই ব্যাটিং ব্যর্থতার কোন ব্যাখ্যা থাকতে পারে না। তার কাছে অন্তত নেই। ব্যাটারদের এই ব্যর্থতার বৃত্ত ভাঙার চ্যালেঞ্জ নিতে বললেন তিনি। তার মতে, কেউ ব্যাটারদের গালে তুলে খাইয়ে দেবে না। নিজেদের কাজটা নিজেদের করতে হবে। এভাবে ব্যর্থ হলে কোচ-নির্বাচকদের তাদের বাদ দেওয়ার সহজ পথ ধরতে হবে বলেও মন্তব্য করেন দেশসেরা ক্রিকেটার।

বোলারদের পারফরম্যান্স নিয়ে তিনি বলেন, ‘আজকের দিনে পেসারদের ভালো বোলিং নিয়ে আমি খুবই খুশি। কিছু হাফ চান্স তৈরি হয়েছিল। সেগুলো নিতে পারলে দিনটি পেসারদের হতো। একশ’ রানের মধ্যে চারটি উইকেট নিতে পারলে ওদের দুইশ’ রানের মধ্যে অলআউট করার সম্ভাবনা তৈরি হতো। মুস্তাফিজ অসাধারণ ছিল, খালেদ ভালো করেছে। এবাদত টেস্টে ভালো বোলিং করছে। আমার মনে হয় ওরা আনলাকি ছিল।’