ড্রেনে ভেসে যাওয়া টাকা ধরছিলেন তারা

নিজস্ব জেলা প্রতিবেদক : রাজশাহীর নগরীর শিরোইল এলাকার রেলওয়ে অফিসার্স মেস ভবনের সামনের একটি ড্রেনের কালো পানিতে কয়েকজন কিছু একটা ধরার চেষ্টা করছিলেন। তা দেখতে ভিড় করছিলেন অনেক মানুষ। পরে জানা গেলে ড্রেনে ভেসে যাচ্ছে পাঁচ টাকা থেকে শুরু করে ৫০০ ও ১০০০ হাজার টাকার নোট।

শনিবার দুপুরে দেখা গেছে, ড্রেনের কালো পানিতে নেমে কয়েকজন টাকা ধরছেন। ড্রেনটির পানি শিরোইল থেকে ভদ্রার দিকে দ্রুতগতিতে যাচ্ছে। সেই পানি থেকে কেউ এক হাজার টাকার নোট, কেউ ৫০০ টাকার নোট আবার কেউ ৫ টাকার নোটও তুলছেন। কেউ কেউ তুলছেন প্রাইজবন্ডও।

তারা জানান, পানিতে পুরাতন কিছু কাগজপত্র ভেসে যাচ্ছে। সেসব কাগজের ভেতর থেকে টাকার নোট পাওয়া যাচ্ছে। কাগজগুলো রাজশাহী সড়ক পরিবহন গ্রুপ কার্যালয়ের।

রঙমিস্ত্রি দিপু ড্রেনে এক হাজার টাকার একটি নোটসহ বেশ কিছু টাকা ধরেছেন। রিকশাচালক আলমগীর হোসেন পেয়েছেন ১০০ ও ৫০০ টাকার নোট।

নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মন বলেন, ওই ড্রেন দিয়ে কোনো অফিসের পুরোনো কাগজপত্র ভেসে যাচ্ছে। তার সঙ্গে কিছু টাকা ভেসে যাবার খবর পেয়েছি। তবে সেটা খুব বেশি নয়।

রাজশাহী জেলা সড়ক পরিবহন গ্রুপের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মতিউল হক জানান, তাদের অফিসের পুরোনো কিছু কাগজপত্র ড্রেনে ফেলা হয়েছিল। সেসব কাগজপত্রের ভেতর কিছু টাকাও ছিল হয়তো।