কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেটে মাসিক ঘুষ আদায় হয় কত?

নয়াবার্তা প্রতিবেদক : কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেটে মাসিক ঘুষ আদায় হয় কত? প্রশ্নটা অস্বাভাকিক। কারণ ভ্যাট কমিশনারেটের কাজ ভ্যাট আদায়, ঘুষ আদায় নয়।

কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অধীন একটি অন্যতম শুল্ক, আবগারী ও মূল্য সংযোজন কর কমিশনারেট। ১৯৯১ সনে প্রবর্তিত মূল্য সংযোজন কর ব্যবস্থায় পরোক্ষ করের আওতা সম্প্রসারিত হওয়ায় মাঠ পর্যায়ে রাজস্ব প্রশাসনের গতিশীলতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ১৯৯৩ সনের ১লা জুলাই কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট এর কার্যক্রম শুরু হয়। এ দপ্তরের অধীন ৮টি বিভাগীয় দপ্তর,  ২৮ টি সার্কেল অফিস এবং ১ টি এলসি স্টেশন শুল্ক, আবগারি ও  মূল্য সংযোজন কর আহরণে নিয়োজিত ছিল।

২০১২ সালে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের আওতাধীন দপ্তরসমূহ পুনঃগঠনের ফলে বর্তমানে কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের, ঢাকা (দক্ষিণ), ঢাকার আওতাধীন ৮টি বিভাগ ও ৩২টি সার্কেল অফিস রাজস্ব  আহরণে নিয়োজিত রয়েছেে। এই ৮টি বিভাগ ও ৩২টি সার্কেল অফিস যথা নিয়মে রাজস্ব  আহরণও করছে। নিয়ম অনুযায়ী কমিশনারেট সরাসরি ভ্যাট গ্রহন করেনা। কিন্তু এই কমিশনারেটের অধিন একাধিক প্রতিষ্ঠান অভিযোগ করেছে প্রতি মাসের নির্ধারিত তারিখের মধ্যে বাস্তবায়ন শাখার সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা শামীমুজ্জামান এর নিকট নির্ধারিত হারে ঘুষের প্যাকেট পৌছে দিতে হয়।

এই অভিযোগের প্রাথমিক প্রমান পাবার পর গত ২৮ অক্টোবর কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট এ নয়াবার্তার পক্ষ থেকে তথ্য অধিকার (তথ্য প্রাপ্তি সংক্রান্ত) বিধিমালা, ২০০৯ এর ৮ ধারা অনুযায়ী কতিপয় তথ্য চেয়ে আবেন করা হয়।প্রশ্নগুলো ছিলো নিন্মরুপ:-

প্রশ্ন :- কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট এর চলতি অর্থবছরে ভ্যাট আদায়ের লক্ষ্য মাত্রা কত? গত জুলাই-২০২১ হইতে অক্টোবর ২০২১ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত আদায়কৃত ভ্যাটের পরিমান কত? প্রতিটি বিভাগ ও সার্কেলের আদায়কৃত ভ্যাট কার্যক্রমের তথ্য পৃথকভাবে বর্ণনা করুন।
প্রশ্ন :- আলোচিত সময়ে ভ্যাট ফাঁকির কোন ঘটণা ঘটিয়াছে কি? ঘটিলে কোন মামলা হইয়াছে কি? মামলা হইলে কতগুলো মামলা হইয়াছে? মামলার বিপরীতে কত টাকার ভ্যাট আদায় হইয়াছে।
প্রশ্ন :- কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট এর পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান, সেবা মূলক প্রতিষ্ঠান, ঠিকাদার, আমদানীকারক প্রতিষ্ঠন, রপ্তানীকারক প্রতিষ্ঠান, এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কত? প্রতিটি বিভাগ ও সার্কেলের পরিসংখ্যানের তথ্য পৃথকভাবে বর্ণনা করুন।
প্রশ্ন :- কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট এর কোন সার্কেলে কতটি হোটেল/ রেস্টুরেন্ট ও মিস্টির দোকান রহিয়াছে। এইসব দোকান সমুহ প্রতিমাসে কত টাকার ভ্যাট দেয়।
প্রশ্ন :- কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট এর কোন সার্কেলে কতটি সুপারমল রহিয়াছে। এই সব সুপারমলে দোকান সংখ্যা কত?
প্রশ্ন :- কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট এর কোন সার্কেলে কতটি প্যাকেজিং কোম্পানী রহিয়াছে।
প্রশ্ন :- কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট এর কোন কোন সার্কেলে কতটি দোকানে ইএফডি মেশিন চালু হইয়াছে। এইসব দোকান হইতে প্রতিমাসে কত টাকার ভ্যাট আদায় হইতেছে।
প্রশ্ন :- কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট এর গত জুলাই-২০২১ হইতে অক্টোবর ২০২১ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত সময়ে কতগুলো প্রিভেন্টিভ কার্যক্রম পরিচালিত হইয়াছে? এইসব কার্যক্রম হইতে কি পরিমাণ রাজস্ব আদায় হইয়াছে।

গত ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট “তথ্য অধিকার (তথ্য প্রাপ্তি সংক্রান্ত) বিধিমালা, ২০০৯ এর ৮ ধারা” বাস্তবায়নে নয়াবার্তার চাহিত তথ্য সরবরাহ করেনি। এমন কি তথ্য সরবরাহ করা হবে কি না তাও জানায়নি। মুলত এসব তথ্য জানালে নয়াবার্তার অনুসন্ধানে ঘুষ আদাযের পরিমান ফাঁস হয়ে যাবার ভয়ে কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট, ঢাকা (দক্ষিণ) কমিশনারেট তথ্য প্রদাণ হতে বিরত রয়েছে। তবে নয়াবার্তার অনুসন্ধান অব্যাহত রয়েছে। এবিষয়ে খুব শিঘ্রই পুর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন প্রকাশিত হবে।